শ্রীনগরে বিদ্যালয়ের পাশে ময়লার ভাগাড়

শ্রীনগর বাজার সংলগ্ন সরকারী সুফিয়া এ হাই খান উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশে ময়লা জমে ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে। বিদ্যালয়টি সংলগ্ন শ্রীনগর খালে প্রতিদিনই শ্রীনগর বাজারের সহ¯্রাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও দোকানপাটের ময়লা-আবর্জনা ফেলার কারণে সেখানে ওই ভাগাড় গড়ে উঠছে।

বিদ্যালয়ের প্রবেশ পথেই শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নাকে রুমাল কিংবা কাপড় চাপতে হচ্ছে। আর এ যেন প্রতিদিনের রুটিনের মতো হয়ে দাঁড়িয়েছে। ওই ভাগাড় থেকে বাতাসের সঙ্গে ময়লা-আবর্জনার তীব্র দুর্গন্ধ ভেসে আসছে বিদ্যালয়ের ভেতর।

তাতে বিদ্যালয়ের পাঠদান বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। দুর্গন্ধের তীব্রতার কারণে বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা এক প্রকার অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন। এ দিকে সরকারী সুফিয়া এ হাই খান উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশেই বয়ে গেছে শ্রীনগর খাল। আবার শ্রীনগর বাজার সংলগ্ন স্থানে এই বিদ্যালয়টির অবস্থান। শ্রীনগর বাজারে সহ¯্রাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও দোকানপাট। আর ওই সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও দোকানপাটের ময়লা-আবর্জনা ও পরিত্যক্ত পলিথিনের মোড়ক প্রতিদিন বিদ্যালয়ের পাশে শ্রীনগর খালে ফেলা হচ্ছে। দিনের পর দিন ময়লা আবর্জনা ও পলিথিনের মোড়ক ফেলতে ফেলতে বিদ্যালয়টির পাশে খালের ওপর স্তূপাকারের সৃষ্টি হয়ে সেখানে ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে। পথচারী ও স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন শ্রীনগর বাজারের বিভিন্ন তরি-তরকারির খোসা, মাছের অপ্রয়োজনীয় অংশ, হোটেল-রেস্তরাঁর খাবারের উচ্ছিষ্টসহ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও দোকানপাটের ময়লা-আবর্জনা ফেলার কারণে বিদ্যালয়টির পাশর্^বর্তী শ্রীনগর খালের ওপর ওই ভাগাড় গড়ে উঠছে। আবার পচনহীন পলিথিনের ভেতর করে এ সব ময়লা-আবর্জনা ফেলার কারণে চরম দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে সেখান থেকে। বিদ্যালয়টির শিক্ষক-শিক্ষার্থী ছাড়াও পথচারী ও স্থানীয় বাসিন্দাদের দুর্গন্ধের কারণে দুর্ভোগের কবলে পড়েছেন।

বিদ্যালয়টির সপ্তম শ্রেণীর শিক্ষার্থী পারভীন আক্তার বলেন, আমরা স্কুলের সামনে এলেই নাকে কাপড় চেপে ভিতরে প্রবেশ করি। সব সময় স্কুলের সামনে এ জায়গাটিতে ময়লা-আবর্জনা ফেলার কারণে পরিবেশসহ আমাদের মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে। সামান্য বৃষ্টি হলেই দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ে চারপাশে। স্কুল চলাকালীন শিক্ষার্থীদের এ দুর্গন্ধ সহ্য করতে হচ্ছে। এ অবস্থায় অতি শিগগির বিদ্যালয়ের পাশে শ্রীনগর খালের ওপর ময়লা-আবর্জনা ফেলা বন্ধ করতে বাজার কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন বিদ্যালয়টির শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

বিদ্যালয়টির পাশের এই ভাগাড় অপসারণ করে সেখানকার সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনার দাবি জানিয়েছেন তারা।

জনকন্ঠ

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

w

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.