মুন্সীগঞ্জে ৩২ বেইলি ব্রিজ ঝুঁকিপূর্ণ

ট্রাকসহ ভেঙে পড়ে ২টি, পিলার হেলেছে ১টির
কাজী সাব্বির আহমেদ দীপু: মুন্সীগঞ্জ সড়ক বিভাগের অধীনে ৩২টি বেইলি ব্রিজ ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। এই ঝুঁকিপূর্ণ বেইলি ব্রিজগুলো ভেঙে সেখানে আরসিসি ও পিসি গার্ডারের ব্রিজ নির্মাণ প্রক্রিয়াধীন থাকলেও ২০২০ সালের আগে তা বাস্তবায়ন সম্ভব নয় বলে জানা গেছে। ফলে প্রতিনিয়ত জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এসব বেইলি ব্রিজের ওপর দিয়ে চলাচল করছে যানবাহন ও যাত্রীরা।

এর মধ্যে গত আট দিনের ব্যবধানে মুন্সীগঞ্জ-টঙ্গিবাড়ী-লৌহজং সড়কে থাকা দুটি বেইলি ব্রিজ দুর্ঘটনার কবলে পড়েছে। গত ১৯ জুলাই লৌহজংয়ের হলদিয়া ছাতি মসজিদ এলাকায় সিমেন্টভর্তি ট্রাকসহ বেইলি ব্রিজ ভেঙে পড়ে খালের পানিতে। শিগগিরই পুনর্নির্মাণ করে জনদুর্ভোগ নিরসন করা হবে বলে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর জানিয়েছে।

এর আগে একই সড়কে ১২ জুলাই টঙ্গিবাড়ী ও লৌহজং সীমান্তবর্তী বালিগাঁও বাজার-সংলগ্ন নদীর তলদেশের মাটি ধসে বালিগাঁও বেইলি ব্রিজের একটি পিলার হেলে পড়েছিল। ২০১৭ সালের ৫ ডিসেম্বর টঙ্গিবাড়ী-সিরাজদীখান-ঢাকা সড়কের সিরাজদীখানের রশুনিয়া এলাকায় পাথরবোঝাই ট্রাকসহ বেইলি ব্রিজটি ভেঙে পড়ে।

এ ছাড়া জেলার ছয়টি উপজেলায় একাধিক আরসিসি পিলারে নির্মিত পাকা ব্রিজ ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। এর মধ্যে গত বছরের ৫ অক্টোবর সিরাজদীখানের মধ্যপাড়ার আদাবাড়ী-ধামালিয়া বাজার এলাকায় পোড়াগঙ্গা শাখা নদীর ওপর নির্মিত ব্রিজটি বাল্ক্কহেডের ধাক্কায় মাঝখানের অংশ ভেঙে যায়। পরে ভেঙে যাওয়া ব্রিজটি সংস্কারের পর মানুষ যাতায়াত করতে পারলেও এখনও যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

অন্যদিকে গজারিয়ার ভবেরচর বাসস্ট্যান্ড থেকে কালীপুরা সড়কের কাউনিয়াকান্দি খালের নির্মিত ব্রিজের ওপর বড় একটি গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় এ ব্রিজটি এখন মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে। এ ব্রিজটি সংস্কার না করায় যাত্রীরা ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে বলে জানা গেছে।

তবে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে, মুন্সীগঞ্জে ৭৬টি বেইলি ব্রিজ ছিল। এর মধ্যে ২০০৮ সাল থেকে পর্যায়ক্রমে বেইলি ব্রিজ ভেঙে তার স্থলে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ২০টি আরসিসি-পিসি গার্ডারে স্থায়ী ব্রিজ নির্মাণের পর তা যান ও যাত্রী চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে আরও ২৪টির নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে।

মুন্সীগঞ্জ সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী মো. সালাউদ্দিন জানান, বর্তমানে ঝুঁকিপূর্ণ ৩২টি বেইলি ব্রিজের স্থলে আরসিসি-পিসি গার্ডারের ব্রিজ নির্মাণের লক্ষ্যে সমীক্ষাশেষে চূড়ান্ত নকশা প্রণয়ন পূর্বক ডিপিপি প্রণয়ন প্রক্রিয়াধীন। ২০২০ সালের মধ্যে এসব ঝুঁকিপূর্ণ বেইলি ব্রিজের স্থলে আরসিসি-পিসি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হবে। এ ছাড়া যেসব পাকা ব্রিজ ক্ষতিগ্রস্ত অবস্থায় রয়েছে সেগুলো সংস্কারের প্রক্রিয়াও চলমান।

সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর সূত্র জানিয়েছে, বর্তমানে ২৪টি বেইলি ব্রিজের স্থলে আরসিসি ও পিসি গার্ডারের ব্রিজ নির্মাণ কাজ চলছে। এর মধ্যে ১৫টি ব্রিজের নির্মাণ কাজ এখন শেষ পর্যায়ে। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে আরও ৯টি আরসিসি ও পিসি গার্ডারের ব্রিজ নির্মাণ কাজ শেষ হবে।

সমকাল

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.