পদ্মাসেতুর দুই পাড়ের ভায়াডাক্টের অগ্রগতি ৫৫ শতাংশ

দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে পদ্মাসেতু প্রকল্পের কাজ। শরিয়তপুরের জাজিরা প্রান্ত ও মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে ভায়াডাক্ট (সেতুর গোড়া) কাজের অগ্রগতি ৫৫ শতাংশ।

আট মাস আগেই পদ্মাসেতুর জাজিরা পাড়ে ১৯৩টি পাইলের কাজ শেষ হয়েছে। এছাড়া মাওয়া প্রান্তে ১৭২টি পাইলের কাজ চলছে। পদ্মাসেতু ওয়েবসাইট (www.padmabridge.gov.bd) সূত্রে জানা গেছে, ভায়াডাক্টের ৩ দশমিক ১৪৮ কিলোমিটার সড়ক এবং ৫৩২ মিটার রেলপথ।

পদ্মাসেতুর কাজ চলছে -ছবি-বাংলানিউজপ্রকৌশলী সূত্রে জানা গেছে, পদ্মাসেতুর ভায়াডাক্ট কাজে এমন কিছু কাজ হয়েছে যা দেশে এই প্রথম। পাইলের ড্রিলিং করার পর এর অবস্থা চেক করা হয় যাকে সনিক্যালিপার বলা হয়। সনিক লগইন টেস্টের মাধ্যমে পাইলের কংক্রিটের গভীরতা, শক্তিমত্তা ও খুঁত পরীক্ষা করা হয়। নির্ধারিত স্থানে মাটি পরীক্ষা করার জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এছাড়া এক নম্বর পিলারের কাজে যেই ড্রিল মেশিন ব্যবহার করা হয়েছে এটিও বাংলাদেশে প্রথম।

পদ্মাসেতুর মাওয়া প্রান্তে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রকৌশলী জানান, মাওয়া প্রান্তে পাইলের কাজ শেষ। বর্তমানে পাইল ক্যাপের (এন) পিয়ার কলামের কাজ চলছে। এন-২, ৪, ৫, ৬, ৭, ৮, ৯,১০ এবং এস-৩ নম্বর পিলারের পাইল ক্যাপের কাজ শেষ হয়েছে। এর মধ্যে এন-৬, ৭, ৮, ৯, ১০ নম্বর পিয়ার কলামের কাজ চলছে। ২০১৮ সালের মধ্যে সব পাইল ক্যাপের কাজ শেষ হবে এবং পিয়ার কলামের ৫০ শতাংশ কাজ শেষ হবে। এক নম্বর পিলারের ১৬টি পাইল আছে এবং এর মধ্যে ১২টি পাইলের কাজ শেষ। আগস্টের ১০ তারিখের মধ্যে এক নম্বর পিলারের বাকি পাইলের কাজ শেষ হবে বলে আশাবাদী প্রকৌশলীরা।

পদ্মাসেতুর কাজ চলছে -ছবি-বাংলানিউজপদ্মাসেতুর জাজিরা প্রান্তের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রকৌশলী জানান, জাজিরা প্রান্তের পিলারের পাইল ক্যাপের কাজ শেষ হয়েছে। বর্তমানে পিয়ার কলাম ও পিয়ার ক্যাপের কাজ চলছে। রেলওয়ের এন-১৯ থেকে এন-২৩ নম্বর পর্যন্ত পিয়ার ক্যাপের কাজ শেষ। জে-৮ নম্বরের পিয়ার ক্যাপ শেষ ও জে-৭ এর পাইল ক্যাপ শেষ হয়নি। পিলার এস-২৭, এস-৩৬, এন-৩০, এসবি ও এনবি পাইল ক্যাপ করা হয়নি। সড়কের এন-১৯ থেকে এন-২৩ পর্যন্ত এবং এন-২৫, এন-৩১, এন-৩২, এন-৩৩, এন-৩৪, এস-২৮, এস-৩০ নম্বর পিলারের পিয়ার কলামের কাজ চলছে। এন-২৪ নম্বর পিলারের পিয়ার ক্যাপের কাজ শেষ। এন-২৬, এন-২৮, এস-২৫,এস-২৬ নম্বরের পিয়ার ক্যাপের কাজ চলছে।

আরও জানা গেছে, এন-২৭, ২৯, ৩৫, ৩৬, ৩৭, ৩৮, ৩৯, ৪০ এবং এস ২৪, ২৯, ৩২, ৩৩, ৩৪, ৩৫, ৩৭, ৩৮ নম্বর পিলারগুলোর পাইল ক্যাপের কাজ শেষ। এন সিরিয়ালে ২৩টি পিয়ার হবে এবং এস সিরিয়ালে পিয়ার হবে ১৭টি। রেলওয়ে এর ছয়টি পিয়ার ক্যাপের কাজ শেষ। বাকিগুলোর কাজ এখনও শুরু হয়নি। জাজিরা প্রান্তে ভায়াডাক্টের ৬৫ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে।

পাঁচটি স্প্যান বসানোর মাধ্যমে পদ্মাসেতুর জাজিরা প্রান্তে পৌনে এক কিলোমিটার কাঠামো দৃশ্যমান হয়েছে। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ সেতুতে ৪২টি পিলারের ওপর বসবে ৪১টি স্প্যান। পদ্মা বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.